Sale!

AutoCAD For Mechanical Engineers

750.00

-
+

Specs

Category:

Description

তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে সফটওয়্যার স্কিল দেহের বিভিন্ন অঙ্গের ন্যায় গুরুত্বপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এখন ইঞ্জিনিয়াররা তো বটেই, অন্যান্য পেশায় নিযুক্ত ব্যক্তিরাও তাদের পেশাগত জীবনে বিভিন্ন সফটওয়্যার ব্যবহার করতে বাধ্য হচ্ছেন। অফিস -আদালতে এম এস ওয়ার্ড, এক্সেল, সি, পাওয়ার পয়েন্ট ,অটোক্যাড প্রভৃতি সফটওয়্যার ব্যপকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। বিভিন্ন সহজ ও জটিল নকশা তৈরির জন্য ডিজাইনারদের প্রথম পছন্দই হল AutoCAD.

AutoCAD হল একটি Computer Aided Design software যা 2-D ও 3-D ডিজাইনে বহুল ব্যবহৃত হয়। এর প্রস্তুতকারক ও প্রকাশক হল Autodesk Inc. পিসিতে প্রথম দিকের Computer Aided Design এর সফটওয়্যার গুলার একটি হল AutoCAD. অনেক পুরোনো হলেও এর আবেদন হারিয়ে যায়নি, বরং তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ইন্সট্রাকটর পরিচিতি

আলী কায়সার, একজন ইঞ্জিনিয়ার ও ডিজাইনার। বিএসসি করেছেন, ম্যাটেরিয়ালস এন্ড ম্যাটালার্জিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এ বুয়েট থেকে। এরপর বেশ কয়েক বছর সফলতার সাথে কাজ করেছেন দেশের সনামধন্য ফ্যাক্টরিতে ম্যাটেরিয়াল সিলেকশন ও প্রোডাক্ট ডিজাইনিং এ। এখন তিনি Safe Venture (IT Company) সিইও হিসেবে কাজ করছেন।

কেন শিখবেন অটোক্যাড

মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়াররাও তাদের বিভিন্ন ডিজাইনের কাজ অটোক্যাডের মাধ্যমেই করে থাকেন। বহু মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারের সফটওয়্যারের হাতেখড়ি হয় অটোক্যাডের মাধ্যমেই। বিভিন্ন সিম্পল পার্ট যেমনঃ নাট-বোল্ট,  স্প্রিং ইত্যাদি ডিজাইনিং এর ক্ষেত্রে অটোক্যাডের সহযোগিতা হয়ে আসে আশির্বাদস্বরূপ। এছাড়াও কিছুটা জটিল ডিজাইন যেমনঃ গিয়ার, বেজপ্লেট ইত্যাদিও সহজেই করে ফেলতে পারবেন অটোক্যাডে । মেকানিক্যাল ডিজাইনের বেসিক ধারণা থাকলেই আপনি অটোক্যাডের বিভিন্ন টুল ব্যবহার করে আঁকতে পারবেন এই ধরণের বেশ কিছু ডিজাইন। এছাড়াও, রয়েছে আইসোম্যাট্রিক ভিউ আঁকার সুবিধা। এমনকি অর্থোগ্রাফিক প্রজেকশনের মাধ্যমে টপ ভিউ, ফ্রন্ট ভিউ, সাইড ভিউ ইত্যাদি আঁকতে পারবেন। এছাড়াও, অটোক্যাডে রয়েছে থ্রি-ডি-মডেলিং এর সুবিধা। এটি ব্যবহার করে আপনি থ্রি-ডি অবজেক্টও আঁকতে পারবেন। ফলে, আপনার ডিজাইনের বিভিন্ন খুঁটিনাটি বিষয়গুলো আরো সহজেই ফুটে উঠবে।

বাংলাদেশের বেশিরভাগ মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়াররা তাদের শিক্ষাজীবন শেষ করে দেশের বিভিন্ন নামকরা ইন্ডাস্ট্রি ও ফ্যাক্টরিগুলোতে যোগদানের মাধ্যমে তাদের ক্যারিয়ার শুরু করেন। ফ্যাক্টরিতে কাজ করা প্রথমদিকে অনেকের জন্য শুরুতে বেশ চ্যালেঞ্জিং হয়ে ওঠে। কারণ, নতুন নতুন সব বিশাল মেশিনের সাথে পরিচিত হওয়া, মেশিনগুলোর ম্যানুয়েল,সার্কিট ডায়াগ্রাম প্রভৃতি সম্বন্ধে জ্ঞানার্জন করা তো সহজ কথা নয়। কিন্তু যাদের বিশ্ববিদ্যালয় জীবন থেকেই মেশিন ডিজাইনিং এর সাথে পরিচয় থাকে তাদের জন্য এরকম পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে মানিয়ে নেয়া খুব একটা কঠিন বিষয় নয়। আর যারা অটোক্যাডে কাজ করেন তাদের জন্য মেশিন এর বিভিন্ন ম্যানুয়েলস অনেকটা কাছের বন্ধুতেই পরিণত হয় খুব সহজেই। অটোক্যাডের সবচেয়ে মজার বিষয়টা হল এর অপারেশনের পদ্ধতি অনেক সহজ। তাই,মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়াররা সহজেই এর সাহায্যে বিভিন্ন ধরণের ডিজাইনিং এর সাথে পরিচিত  হতে পারেন। ফ্যাক্টরির এই ধরণের চ্যালেঞ্জকে যারা সহজেই আপন করে নিতে পারেন কর্মক্ষেত্রে তারা সহজেই সবার চোখে পরেন ও তারা থাকেন অন্যদের সাথে অনেক এগিয়ে। ফ্যাক্টরি থেকে হেড অফিস পর্যন্ত তাদের সুনাম ছড়িয়ে পড়ে। এই ধরণের একটি ক্যারিয়ার প্রোফাইল গড়ে তোলা আসলে সৌভাগ্যের বিষয়।

অনেক মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারই আবার কিছুদিন চাকরি করে পরে নিজেরাই বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলে বসেন। অনেকে পছন্দ করেন মেকানিক্যাল বিভিন্ন প্রডাক্ট ডিজাইনের কাজ। প্রডাক্ট ডিজাইনিং এর ব্যবসায় অটোক্যাডের ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা অপরিহার্য। কাস্টোমারের কাছে বিভিন্ন ধরণের প্রোডাক্টের যে ডাইমেনশনসহ স্পেসিফিকেশন নেয়া হয় তা থাকে প্রধাণতঃ অটোক্যাডের ডিডব্লিউজি ফাইল ফরমেটে করা অটোক্যাডের ড্রয়িং। এছাড়াও অনেক  বায়ার তার প্রোডাক্ট ডিজাইন করানোর আগে অটোক্যাড এ করা কাজের পোর্টফোলিও দেখতে চান।তাই, ব্যবসা- বাণিজ্যের ক্ষেত্রেও অটোক্যাডে পারদর্শিতা আপনাদেরকে রাখবে অন্য সবার চেয়ে অনেক এগিয়ে।

সবশেষে, এ ব্যপারটি নিশ্চিতভাবেই বলা যায় যে, মেকানিক্যালের শিক্ষার্থীদের উচিত শিক্ষাজীবনেই অটোক্যাডে পারদর্শিতা অর্জনে সচেতন হয়ে নিজের পোর্টফোলিওকে সমৃদ্ধ করা। কারণ, অটোক্যাডে পারদর্শিতা ব্যতীত মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং লাইফ চিন্তা করাই আসলে দুষ্কর।

এছাড়া কোর্সটি শেষ করার পর আপনি কোর্স কমপ্লিশন সার্টিফিকেটও পেয়ে যাবেন।

কিভাবে জয়েন করবো কোর্সটিতে?

‘Take This Course’ বাটনে ক্লিক করুন। আপনি লার্নিং বাংলাদেশ প্ল্যাটফর্মের পেমেন্ট গেটওয়ে ভিসা/মাস্টারকার্ড বা মোবাইল ওয়ালেট বিকাশ/রকেটের মাধ্যমে পেমেন্ট করতে পারবেন।

এর পাশাপাশি যদি আপনি টেকনিক্যাল ইস্যু ফেইস করে থাকেন তাহলে আমাদের পার্সোনাল বিকাশ, নগদ কিংবা রকেটে কোর্স ফি সেন্ড মানি করতে পারেন আপনার মোবাইল নাম্বার রেফারেন্সে উল্লেখ করে।

বিকাশ: +8801736461937  ।  নগদ: +8801711283732  ।  রকেট: +88017112837329

তবে এভাবে ম্যানুয়ালি পেমেন্ট করলে আপনাকে অবশ্যই এই ফর্ম টি পূরণ করতে হবে সঠিক তথ্য দিয়ে।
ফর্ম এ যেতে এখানে ক্লিক করুন পারসোনালি টাকা পাঠানোর পরবর্তী ফর্ম

আমরা ফিরতি কলে আপনার কাছ থেকে বিস্তারিত জেনে এনরোল করিয়ে দিব।

বিস্তারিত জানতে কল করুন

01736461937

Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on linkedin
LinkedIn
Share on facebook
Facebook
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on linkedin
LinkedIn