নতুন উদ্যোক্তাদের জন্য ৩ বছর বিজনেস ধরে রাখার টিপস

নতুন উদ্যোক্তার জন্য বিজনেস শুরু করার প্রথম ৩ বছর সবচেয়ে বেশী চ্যালেঞ্জিং। এই সময়টিতে যদি ভেবেচিন্তে হিসাব করে খরচ আর প্রয়োজনীয় খাতে ইনভেস্টমেন্ট করা যায় তাহলে খুব ভালোভাবেই বিজনেস আস্তেধীরে গড়ে তোলা সম্ভব।

আপনি যদি উদ্যোক্তা হয়ে থাকেন, তাহলে আজ আপনার জন্য কিছু স্ট্র‍্যাটেজি শেয়ার করছি।

বিজনেস প্ল্যান, ব্র্যান্ড প্ল্যান ও মার্কেটিং প্ল্যান

বিজনেস শুরুর আগেই কী নিয়ে বিজনেস করছেন, টার্গেট অডিয়েন্স কারা, তারা কি পছন্দ করে, আর সেই পছন্দ অনুযায়ী প্রোডাক্ট, সার্ভিস নিয়ে বিজনেস প্ল্যান, ব্র্যান্ড প্ল্যান ও মার্কেটিং প্ল্যান সাজিয়ে ফেলুন।

  • বিজনেস মডেল ক্যানভাস রেডি থাকলে বিজনেসের ভিত মজবুত থাকবে।
  • রেগুলার কাস্টমারদের ফিডব্যাক নিয়ে প্রোডাক্ট বা সার্ভিসের ফিচার বা সার্ভিসে ইম্প্রুভমেন্ট নিয়ে আসুন।
  • জাস্ট ‘মার্কেটিং করতে হবে’ এর জন্য মার্কেটিং না করে ট্রেন্ড আর টার্গেট অডিয়েন্সদের পালস বুঝে মার্কেটিং প্ল্যান, স্ট্র‍্যাটেজি ও ক্যাম্পেইন সাজান।
  • পেইড ক্যাম্পেইন ছাড়াই অডিয়েন্সরা যেন পছন্দ করে ভালোলাগা থেকে আপনার মার্কেটিং এক্টিভিটিজ এর সাথে এনগেইজড হয়, সে বিষয়গুলোতে জোর দিন। বেস্ট মার্কেটিং ক্যাম্পেইন কখনোই মার্কেটিং ক্যাম্পেইন মনে হয় না।
  • ব্র‍্যান্ড বিল্ডিং এ জোর দিন, এতে লং রানে বিজনেস টিকিয়ে রাখতে পারবেন।

নিজের একটি ওয়েবসাইট

আপনি ঘুমিয়ে থাকার সময়ও যদি বিজনেস চালু রাখতে চান, তাহলে পেমেন্ট গেটওয়ে সহ নিজের একটি ওয়েবসাইট বানিয়ে ফেলুন। আপনার ওয়েবসাইটই আপনার বিজনেসের সেলস পারসনের দ্বায়িত্ব নিয়ে নিবে।

  • বিজনেসের শুরুতেই অনেক টাকা খরচ করে ওয়েবসাইট না বানিয়ে স্বল্প বাজেটের মধ্যে ওয়ার্ডপ্রেস বা এজাতীয় সিএমএস ব্যাবহার করে বানিয়ে ফেলুন।
  • ওয়েবসাইটের রেগুলার ব্যাকআপ রাখাটা নিজেই আয়ত্বে নিয়ে আসুন। তাহলে যেকোনো সিস্টেম লসে হায় হায় করে নিস্ব হতে হবে না।
  • ওয়েবসাইট আপনার ফিজ্যিকাল দোকানেরই অনলাইন ভার্সন, তাই ডিজাইন, মোবাইল রেসপন্সিভনেস, দ্রুত লোড হওয়ার বিষয়গুলো মাস্ট এনসিউর করুন।

সোশ্যাল মিডিয়া প্রেজেন্স

ডিজিটাল এই যুগে ফেইসবুক, ইন্সাটাগ্রাম পেইজ খুলে ও প্রোপারলি ম্যানটেন্সের মাধ্যমেও বেশ ভালো সেলস জেনারেট করা যায়। আর যদি চ্যাটবট সেটাপ করে ফেলতে পারেন, তাহলে ওয়েবসাইটের মতো চ্যাটবটও আপনার সেলস ম্যানেজার হিসাবে কাজ করবে।

অনলাইন পেইড প্রোমোশন

টার্গেট অডিয়েন্সের কাছে পৌছাতে ফেইসবুক, ইন্সটাগ্রাম, ইউটিউব থেকে অপটিমাম বাজেটের মধ্যে এডভার্টাইজমেন্ট দেওয়া শিখুন।

লিড জেনারেশন ও অটোমেশন

বিদেশী ক্রেতা বা ইনভেস্টটর খুজে পেতে লিংকডইন এর বিকল্প নেই। আর তাই লিংকডইনে একটা সুন্দর বিজেনেস প্রোফাইল খুলে, টার্গট অডিয়েন্স গ্রুপ সিলেক্ট করে ম্যাজেস অটোমেশন ও লিড জেনারেশন করা সম্ভব।

ডাটা ভিজ্যুয়ালাইজেশন

বিজনেসে সঠিক সিদ্ধান্ত তখনই নিতে পারবেন যখন কিনা বিজনেসের সকল চ্যানেলের ডাটা প্রোপারলি ভিজ্যুয়ালাইজ করা যায়। তাই ডাটা ভিজ্যুয়ালাইজেশন করে নিজের বিজনেসের ক্রিটিক্যাল ডিসিশন সহজে নিয়ে নিন।

বিজনেসের প্রথম ৩ বছর যদি এই সবকিছুই নিজের আয়ত্বে নিজেই করে ফেলতে পারেন, তাহলে এরপর লোক নিয়োগ করে সেই বিজনেস এক্সপান্ড করা অনেক সহজ হয়ে যাবে। আর এই সবকিছু শিখতে লার্নিং বাংলাদেশের ৩ মাসের ডিজিটাল মার্কেটিং প্রোগ্রামে আজই এনরোল হয়ে যেতে পারেন। বিস্তারিত আমাদের ওয়েবসাইট থেকে জানুন।

Related Articles

৬ মাসের উদ্যোক্তা চ্যালেঞ্জ

লার্নিং বাংলাদেশ প্ল্যাটফর্ম আমরা নিয়ে আসছি ‘৬ মাসের উদ্যোক্তা চ্যালেঞ্জ’। এই প্রোগ্রামের আওতায় আমরা ২৪ সপ্তাহের জন্য ২৪টি ইনটেনসিভ কোর্স ক্যারিকুলাম থাকবে, যেখানে আপনাকে অনলাইন…

লিড জেনারেশন ও মার্কেটিং অটোমেশন ওয়ার্কশপ

লিড কি শুধুই পটেনশিয়াল ক্লায়েন্ট খোঁজার জন্য করতে হবে? – দক্ষ টিম মেম্বার – বিজনেসের জন্য ইনভেস্টমেন্ট – অনডিমান্ড ভেন্ডর – সাপ্লাইয়ার সহ  কোথায় নেই…

SME Stories | Episode 1 | যেভাবে SME বিজনেস স্কেলআপ করবেন?

একজন উদ্যোক্তা ৪-৫ বছর বিজনেস অপারেশনের ‘কিছুটা’ অভিজ্ঞতা অর্জনের পর যখন বুঝতে পারে যে… “কিছু কিছু বিষয় যদি বিজনেস শুরুর আগেই জানতে পারতাম তাহলে পথ…

ইন্টারভিউ বোর্ডে নিয়োগকর্তাকে যে ৬ টি প্রশ্ন করতে পারেন

জব ইন্টারভিউতে শুধুমাত্র নিয়োগকর্তারাই প্রশ্ন করবে বিষয়টা তা নয়। ক্যান্ডিডেড দেরও উচিত বেশ কিছু রিলিভেন্ট প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা। এতে নিয়োগকর্তা ও ইন্টারভিউ বোর্ডের প্রশ্নকর্তাদের ভিতরেও…

Digital Marketing | Story From New Zealand

আবদুল্লাহ আল আসিফ ভাই দীর্ঘ দিন ধরে ডিজিটাল মার্কেটিং এর সাথে যুক্ত আছেন। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে কাজ করেছেন কেবল মাত্র নিজের প্যাশনের জায়গা থেকে। একজন মানুষ…